সাভারে করোনা মোকাবেলায় বসে নেই কেউ, কাজ করছেন সবাই

সাভারে করোনাভাইরাস মোকাবেলায়

স্ব স্ব অবস্থান থেকে সাধ্য মতো সবাই কাজ করছেন  

নিউজ হাঁট ডেস্ক :

করোনাভাইরাস মোকাবেলায় সর্তকতামূলক প্রচার-প্রচারণায় লিফলেট বিতরণ, করোনা সংক্রমন রোধে হ্যান্ড স্যানিটাইজার, মাস্ক ও সাবান বিতরণ এবং লক ডাইনের কারণে কর্মহীন ও বেকার হয়ে পড়া অসহায় দরিদ্রদের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণে নিরোলসভাবে কাজ করছেন সাভার উপজেলা প্রশাসন, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, ঢাকা জেলা পুলিশ প্রশাসন, স্থানীয় জন-প্রতিনিধি, রাজনৈতিক দল, সামাজিক সংগঠন সহ সমাজের সামর্থ্যবান একাধিক ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠান। শুধু তাই নয় মূল্য বৃদ্ধি নিয়ন্ত্রণেও কাজ করছেন দায়িত্বরতরা।

ইতিমধ্যে দুর্যোগ ব্যবস্থপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বরত প্রতিমন্ত্রী ও সাভারের সংসদ সদস্য ডা: এনামুর রহমান  প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশ বাস্তবায়নে সাভার উপজেলায় করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় “সাভার উপজেলা দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটি” নামক একটি মনি টোরিং কমিটি গঠন করেছেন। যেখান থেকে জন সচেতনতায় সর্তকতামূলক প্রচারণা, সংক্রমন রোধে প্রোটেকশন প্রদান,  অসুস্থদের  চিকিৎসা সেবা, অসহায়দের খাদ্য  সহায়তা, দ্রব্যে মূল্য বৃদ্ধি নিয়ন্ত্রণ সহ সকল বিষয়ে মনিটোরিং করা হচ্ছে।

করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় সাভার উপজেলা চেয়ারম্যান মঞ্জুরুল আলম রাজীব, উপজেলা নির্বাহী অফিসার পারভেজুর রহমান জুমন, পৌরসভা মেয়র হাজী আব্দুল গনি, সহকারী কমিশনার ভূমি আব্দুল্লাহ আল মাহফুজ, সাভার উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা: সায়েমুল হুদা, সাভার মডেল থানা অফিসার ইন-চার্জ এএফএম সায়েদ,সাভার উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মোহাম্মদ একরামুল হক সহ উপেজেলার ১২টি ইউনিয়ন চেয়ারম্যান বিশেষ করে তেঁতুলঝোড়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ফখরুল আলম সমর, ধামসোনা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান সাইফুল ইসলাম, আশুলিয়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান সাহাব উদ্দিন, সাভার সদর  ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান সোহেল রানা সহ অন্যান্য চেয়ারম্যান সরকারী নির্দেশনা মেনে স্ব স্ব অবস্থান থেকে মানবতার সেবায় কাজ করছেন।  সাভার উপজেলা চেয়ারম্যান মঞ্জুরুল আলম রাজীব নিজ উদ্যোগে লক  ডাউনের কারণে বেকার ও কর্মহীন হয়ে পড়া পরিবারের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করছেন। সাভার উপজেলা নির্বাহী অফিসার পারভেজুর রহমান, সহকারী কমিশনার ভূমি আব্দুল্লাহ আল মাহফুজ, সাভার উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মোহাম্মদ একরামুল হক উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে সরকারী সহায়তার ত্রাণ সামগ্রী অসহায় ও দরিদ্রদের বাড়ী বাড়ী পৌছে দিচ্ছেন। সাভার পৌরসভার মেয়র পৌর হাজী আব্দুল গনি ব্যক্তিগত ফান্ড থেকে নিত্য প্রয়োজনীয় খাদ্যসামগ্রী পৌরসভার ৯টি ওয়ার্ড ঘুরে ঘুরে অসহায়দের মাঝে বিতরণ করছেন।
এছাড়া উপজেলার তেঁতুলঝোড়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মোহাম্মদ ফখরুল আলম সমর করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় নিজ উদ্যোগে ইউনিয়নে গঠন করেছেন মনিটোরিং সেল। ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে স্বেচ্ছাসেবক কর্মীরা কাজ করছেন, অসহায়দের সুবিধা-অসুবিধা জানাচ্ছেন চেয়ারম্যানকে, সে অনুযায়ী চেয়ারম্যান খাদ্য-সামগ্রী পাঠিয়ে দিচ্ছেন লক ডাউনের কারণে বেকার ও কর্মহীন হয়ে পড়া অসহায়দের মাঝে।

উপজেলার ধামসোনা ইউনিয়ন চেয়ারম্যান সাইফুল ইসলাম করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় অসহায় পরিবারের মাঝে নিত্য প্রয়োজনীয় খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করছেন। আশুলিয়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান সাহাব উদ্দিন, সাভার সদর ইউনিয়ন চেয়ারম্যান সোহেল রানা সহ উপজেলার ১২টি ইউনিয়নের প্রতিটি ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আন্তরিকতা সাথে কাজ করছেন করোনা মোকাবেলায়।

মানবতার সেবায় ততপর পৌরসভার সকল কাউন্সিলরগণ। পৌরসভার ৯টি ওয়ার্ডের কাউন্সিলর বিশেষ করে ২ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও প্যানেল মেয়র নজরুল ইসলাম মানিক মোল্লা নিরোলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন করোনা ভাইরাস মোকাবেলায়। করোনা সংক্রমন রোধে মাস্ক, হ্যান্ড স্যানিটাইজার, সাবান, টিস্যু বিতরণ করছেন ওয়ার্ডের সর্বসাধারণের মাঝে।

এছাড়া লক ডাউনের কারণে বেকার হয়ে পড়া অসহায়দের মাঝে বিতরণ করছেন নিত্য প্রয়োজনী খাদ্য সামগ্রী। বসে নেই পৌরসভার ৪ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর নুরে আলম সিদ্দিকী নিউটন, ৮নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর সেমিল মিয়া। ওয়ার্ডের সাধারণ মানুষদের করোনা ভাইরাস থেকে রক্ষা করতে সর্তকতামূলক প্রচারণা সহ অসহায় মানুষদের সুবিধা-অসুবিধার দিকে খেয়াল রাখছেন, ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করছেন। একইভাবে অন্যান্য ওয়ার্ড কাউন্সিলরাও কাজ করছেন করোনা মোকাবেলায়। সাভারে করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় জীবানুনাশক ওষুধ স্প্রে করবার কাজ করছেন ফায়ার সার্ভিস ও সাভার পৌরসভা।

করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় সাভার মডেল থানা অফিসার ইন-চার্জ এএফএম সায়েদ জরুরী সেবা দিতে প্রয়োজনে ঘরে বসে মোবাইলে জানালেই নিত্য-প্রয়োজনীয় পণ্য সামগ্রী বাসায় বাসায় পৌছে দেবার ঘোষণা দিয়েছেন এবং সেভাবেই কাজ করে যাচ্ছেন সাভার থানা পুলিশ। সাধারণ মানুষ যেন ঘর থেকে বের না হন, সে কাজটি ঠিক মতো তদারকি করছেন তারা, এছাড়া সেনাবাহিনী টহল টীম তো রয়েছেই।

সাভারের রাজনৈতিক নেতা-কর্মীরাও করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় ঘরে বসে

নেই। মানবতার সেবায় নিজেদের সামর্থ্য অনুযায়ী লক ডাউনের কারনে বেকার হয়ে পড়া অসহায় দরিদ্রদের সহায়তায় কাজ করছেন। উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি হাসিনা দৌলা,  ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাসুদ চৌধুরী, কেন্দ্রিয় যুবলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক ফারুক হাসান তুহিন, ঢাকা জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক জিএস মিজান সহ স্থানীয় অন্যান্য নেতা-কর্মীরাও করোনা মোকাবেলায় অসহায় মানুষদের সহায়তায় ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করছেন স্ব স্ব উদ্যোগে।

করোনা ভাইরাস মোকাবেলায়  জাগরণী থিয়েটার ও সোস্যাল আপলিফটমেন্ট সোসাইটি(সাস) কাজ করছেন। করোনা সংক্রমন রোধক হ্যান্ড স্যানিটাইজার ও মাস্ক এবং সর্তকতামূলক প্রচারণায় লিফলেট বিতরণ সহ নানা ধরনের কাজ করছেন তারা।করোনা মোকাবেলায়

আশুলিয়া শিল্পাঞ্চলে  লক ডাউনের কারণে বেকার ও কর্মহীন ৫’শতাধিক খেটে খাওয়া নারী-পুরুষ শ্রমিকদের নিত্য প্রয়োজনীয় খাদ্য সামগ্রী ভর্তি প্যাকেট বিতরণ করছেন জাতীয় শ্রমিক লীগ আশুলিয়া আঞ্চলিক কমিটির সভাপতি আকবর মৃদা।

সাভার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্মকর্তা ডা: মোহাম্মদ সায়েমুল জানান, এখন পর্যন্ত ১১০জনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে করোনা সন্দেহে চিকিৎসা প্রদান করা হয়েছে। এদের মধ্যে ২৮জন চিকিৎসাধীন রয়েছে। তবে আগামী সপ্তাহে করোনা পরিস্থিতি সম্পর্কে ধারনা করা যেতে পারে। বর্তমানে সাভারে কোন করোনা রোগী নেই।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার পারভেজুর রহমান জানান, সাভার উপজেলা দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটির করোনা ভাইরাস সংক্রান্ত সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে । সভায় করোনা ভাইরাসে যারা মৃত্যুবরণ করবেন তাদের জন্য নিদিষ্ট কবরস্থানে দাফনের জন্য ২টি এ্যাম্বুলেন্স, ভলেন্টিয়ার, ২০টি পিপিএ সহ ইতিমধ্যে সকল প্রস্তুতি গ্রহন করা হয়েছে। অসহায় দরিদ্রদের জন্য সাভার উপজেলা থেকে সরকারীভাবে ১০টন চাল বরাদ্ধ দেয়া হয়েছে। চাল দু’একদিনের মধ্যে ইউনিয়ন ও পৌরসভার লোকদের মাঝে বিতরণ করা হবে।

দুর্যোগ ব্যবস্থপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বরত প্রতিমন্ত্রী ও সাভারের সংসদ সদস্য ডা: এনামুর রহমান জানান, করোনাভাইরাস মোকাবেলায় সবার আগে সবাইকে সর্তক হয়ে কাজ করতে হবে। সাভারের জন-প্রতিনিধি, নেতা-কর্মী ও প্রশাসনের সকলেই কাজ করছেন । এসময় তিনি বলেন কেউ বসে নেই,  সকলেই সহায়তা করছেন অসহায়দের সহায়তায়। সরকারী সহায়তারও কমতি নেই । চলতি মাসের প্রথম সপ্তাহ সবাইকে বাড়তি সর্তকতা নিয়ে কাজ করবার আহবান জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, জরুরী প্রয়োজন ছাড়া সবাই ঘরে থাকবেন এছাড়া ত্রাণ সামগ্রী বিতরণের সময় অবশ্যই নিরাপদ দুরত্ব বজায় রেখে তা বিতরণ করতে হবে।

তবে আমরা সকলেই আল্লাহর নিকট প্রার্থণা করবো, তিনি যেন আমাদের উপর রহমত দান করেন, তিনিই সকল রহমতের মালিক।

সাভার

০১.০৪.২০২

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *