ফিফা সভাপতি ঢাকায়

বাংলাদেশে এক ঝটিকা সফরে এসেছেন ফিফা সভাপতি জিয়ান্নি ইনফান্তিনো। বৃহস্পতিবার ভোরে শাহজালাল বিমানবন্দরে অবতরণ করে তাঁকে বহনকারী বিমান।

ফিফা সভাপতি জিয়ান্নি ইনফান্তিনো এখন ঢাকায়। বৃহস্পতিবার ভোরে শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করে তাঁকে বহনকারী বিমান। মাত্র ১৫ ঘণ্টার ঝটিকা সফরে ঢাকায় এসেছেন ফিফা সভাপতি। বিমানবন্দরে সবাইকে শুভ সকাল জানিয়ে প্রথমবারের মতো বাংলাদেশে আসতে পেরে আনন্দ প্রকাশ করেন ইনফান্তিনো।

চার সঙ্গী নিয়ে কিছু কর্মসূচিতে যোগ দেবেন ফুটবলের নিয়ন্ত্রক সংস্থার এ প্রধান। সকাল সাড়ে ১০টায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে ইনফান্তিনোর সৌজন্য সাক্ষাতের কথা রয়েছে। সেখান থেকে তিনি দুপুর সোয়া ১২টায় আসবেন মতিঝিলে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন ভবনে। এ উপলক্ষে বাফুফে ভবন সেজে উঠেছে নতুন সাজে। ভবন চত্বরে লনের ঘাস কেটে সুন্দর করা হয়েছে। ফিফা সভাপতিকে শুভেচ্ছা জানিয়ে তাঁর প্রতিকৃতি লাগানো হয়েছে ভবনে। বিশ্ব ফুটবলের এই শীর্ষ কর্মকর্তাকে উষ্ণ অভিনন্দন জানাতে চেষ্টার কোনো কমতি রাখছে না বাফুফে।

ফিফা সভাপতিকে দেশীয় জামদানি শাড়ি উপহার দেবে বাফুফে। আর প্রধানমন্ত্রীর হাত দিয়ে বাংলাদেশ দলের একটি জার্সি (১০ নম্বর) উপহার দেওয়া হবে তাঁকে, যেটির পেছনে ইনফান্তিনোর নাম থাকবে। তাঁর সফরসঙ্গীদের দেওয়া হবে দেশে তৈরি টেবিল ম্যাট।

ফিফা সভাপতি মতবিনিময় করবেন বাফুফের কার্যনির্বাহী পরিষদের সঙ্গে। জানতে চাইবেন বাফুফের আগামী পরিকল্পনা। বাফুফে আগ বাড়িয়ে কিছু চাইছে না ইনফান্তিনোর কাছে। তবে তিনি নিজে কিছু জানতে চাইলে ভিন্ন কথা। বাফুফে সভাপতি কাজী সালাউদ্দিন বলেছেন, ‘তিনি শুভেচ্ছা সফরে আসবেন। কাজেই এখানে চাওয়ার কিছু নেই। তবে তিনি বাংলাদেশের ফুটবল সম্পর্কেও ধারণা রাখেন। কাজেই তিনি নিজে কিছু দিতে চাইলে আমরা আলোচনা করতে পারি। এসব নিয়ে আমরা অবশ্য ভাবছি না।’

বাফুফের দেওয়া সূচি অনুযায়ী, ফিফা সভাপতি ফুটবল ভবনে থাকবেন প্রায় ৪৫ মিনিট। দুপুর ১২টা ৫০ মিনিটে হোটেলের উদ্দেশে রওনা দেবেন। সোনারগাঁও হোটেলে সংবাদ সম্মেলনে অংশ নেবেন বেলা ২টা ২০ মিনিটে। ৩টায় হোটেল থেকে বিমানবন্দরের উদ্দেশে রওনা দেবেন। বিকেল পাঁচটায় লাওসের উদ্দেশে যাত্রা করবেন।

কোনো ফিফা সভাপতির এটি চতুর্থ বাংলাদেশ সফর। ১৯৮০ সালে প্রথমবার এসেছিলেন জোয়াও হ্যাভেলাঞ্জ। ২০০৬ ও ২০১২ সালে দুবার আসেন সেপ ব্ল্যাটার। ২০১৬ সালের ২৬ ফেব্রুয়ারি ফিফা সভাপতি হন ইনফান্তিনো, এ বছরের ৫ জুন পুনর্নির্বাচিত হন। ফিফা সভাপতি হওয়ার ৪৪ মাস পর এই প্রথম ইনফান্তিনো বাংলাদেশে এসেছেন। এশিয়া সফরের অংশ হিসেবেই তাঁর ঢাকায় আসা। এসেছেন মঙ্গোলিয়া থেকে। সঙ্গী রয়েছেন ফিফার ডেপুটি সেক্রেটারি জেনারেল (ফুটবল) ম্যাটিয়াস গ্রাফসস্ট্রম, চিফ অব কমিউনিকেশনস অনোফ্রি কস্তা, ডিরেক্টর অব মেম্বার অ্যাসোসিয়েশন এশিয়া অ্যান্ড ওশেনিয়া এবং প্রেসিডেন্টস অফিস ম্যানেজার ফেদেরিকো রিভিগলিওন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *