ধামরাইয়ে অপরাধ নিমূলে এলাকায় সিসি ক্যামেরা স্থাপনে উদ্যোগ নেওয়ায় সন্ত্রাসী হামলার শিকার ৩ যুবক, গ্রেপ্তার ১

ধামরাইয়ে অপরাধ নিমূলে এলাকায়

সিসি ক্যামেরা স্থাপনে উদ্যোগ নেওয়ায় সন্ত্রাসী হামলার শিকার হলেন ৩ যুবক, গ্রেপ্তার ১

 

নিউজ হাঁট ডেস্ক :

অপরাধ প্রবনতা নিমূলে এলাকায় সিসি ক্যামেরা স্থাপন করবার উদ্যোগ নেওয়ায় ধামরাইয়ে অপরাধী চক্রের হোতাদের রোশানলে পড়ে সন্ত্রাসী হামলা শিকার হয়েছেন ৩ যুবক। সন্ত্রাসীদের ধারালো অস্ত্র ও লাঠিশোঠার আঘাতে গুরুত্বর আহত যুবকদের প্রথমে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এবং পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য সাভার এনাম মেডিকেল কলেজ এন্ড হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। এ ঘটনায় ধামরাই থানায় মামলা দায়েরের পর পুলিশ ১ আসামীকে গ্রেপ্তার করেছে।

মঙ্গলবার ( ২১ ডিসেম্বর ) সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে ধামরাই পৌরসভার ৫নং ওয়ার্ডের দক্ষিণপাড়া থানা রোড ‘স’ মিলের সামনে এমন  ঘটনা ঘটে। আহতরা হলেন- ঈব্রাহীম ওরফে সুমন মোল্লা (৩২) , মমিনুল ইসলাম টিটু (২৮) ও সোহেল (৩৫)।

ঘটনার পর রাতে সন্ত্রাসী হামলায় আহত ঈব্রাহীম ওরফে সুমন মোল্লার বাবা সোবহান মোল্লা সন্ত্রাসী কর্মকান্ডের মূল হোতা দিদার হোসেনকে প্রধান আসামী করে এবং আরও ৮জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত  ৫/৭ জনের নাম দিয়ে ধামরাই থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

ধামরাই থানা পুলিশ বিষয়টি আমলে নিলে রাতে একটি মামলা নথিভুক্ত হয়। পরে পুলিশী অভিযানে সুমন(৩৫) নামে মামলার এক আসামী গ্রেপ্তার হয়।

মামলায় উল্লেখিত ৯ আসামীরা হলেন—দিদার হোসেন (৫৪) , ফরহাদ হোসেন(২৮), মুরাদ(২২), হেলাল(৩৩), তানভীর(২৬), হান্নান(২৩), সুমন(৩৫), আলামিন(২৩), জয়নাল(৪০)।

এলাকাবাসী জানায়, সম্প্রতি ধামরাই পৌরসভার ৫ নম্বর ওয়ার্ডের দক্ষিণপাড়া এলাকায় বাসা-বাড়িতে চুরি বেড়ে যাওয়ার পাশাপাশি রাস্তার ওলি-গলিতে মাদক সেবনকারী ও ব্যবসায়ীসহ বখাটেদের উৎপাত ও অপরাধমূলক কর্মকান্ড বেড়ে যাওয়ায়  সিসি ক্যামেরা স্থাপনের উদ্যোগ নেয় স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন “দক্ষিণপাড়া সমাজ কল্যাণ সমিতি”

এদিকে নিজেদের অপরাধমূলক কর্মকান্ড ফাঁস হয়ে যেতে পারে এমন ভাবনা থেকে মামলায় অভিযুক্তরা প্রথম থেকেই ভোক্তভোগীদের ভয়ভীতি ও প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে আসছিলো। বিষয়টিতে ভোক্তভোগীরা তেমন গুরুত্ব না দিলেও অবশেষে মঙ্গলবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে মোবাইলে দক্ষিণপাড়া থানারোড ‘স’ মিলের সামনে ওই যুবকদের ডেকে নিয়ে যায় অপরাধী চক্রের মূল হোতা দিদার হোসেন(৫৪)  গ্রুপের সদস্যরা  । এ সময় ঈব্রাহীম ওরফে সুমন মোল্লা , মমিনুল ইসলাম টিটু ও সোহেলের কাছ থেকে অভিযুক্তরা নগদ টাকা ও মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নিয়ে ধারালো অস্ত্র, লোহার রড ও লাঠিশোঠা দিয়ে কুপিয়ে ও পিটিয়ে গুরুত্বর জখম করে রক্তাক্ত করে। এ ঘটনায় চিৎকার চেঁচামেচির শব্দ পেয়ে আশপাশের লোকজন এগিয়ে এলে অভিযুক্তরা পালিয়ে যায়। আহতদের উদ্ধার করে স্থানীয়রা প্রথমে ধামরাই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে সেখান থেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ২ জনকে সাভার এনাম মেডিকেল কলেজ এন্ড হাতপাতালে প্রেরণ করা হয়।

ধামরাই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সূত্রে জানা যায়, আহতদের মধ্যে ২ জন ঈব্রাহীম ওরফে সুমন মোল্লা ও মমিনুল ইসলাম টিটুর মাথায় ও শরীরে ধারালো অস্ত্রের আঘাত ও জখম বেশী হওয়ায় তাদের অন্যত্র প্রেরণ করা হয়েছে।

আহত সুমন মোল্লার পিতা সোবহান মোল্লা জানান, এলাকায় চুরি, মাদক ব্যবসা ও বখাটেদের আড্ডাবাজি বেড়ে যাওযায় আমার ছেলেসহ এলাকার বিভিন্ন বয়সী শিক্ষিত যুবকদের স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ‘দক্ষিণপাড়া সমাজ কল্যাণ সমিতির’ পক্ষ থেকে এলাকার ওলি-গলি ও রাস্তায় সিসি ক্যামেরা স্থাপনের উদ্যোগ নেয়। তবে বিষয়টি কোনভাবেই মেনে নিতে পারছিলো না অপরাধী কর্মকান্ডের সাথে জড়িত চক্রটি। আর তাই আজ তারা এভাবে ওদেরকে মেরে রক্তাক্ত করা হয়েছে। এ ঘটনার সাথে জড়িতদের আমি উপযুক্ত শাস্তির দাবি জানাচ্ছি।

স্থানীয় ৫ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আমিনুল ইসলাম গার্নেল জানান, ঘটনার খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে গিয়ে আমি নিজেও অপরাধের মূলহোতা দিদার হোসেন ও তার সন্ত্রাসী গ্রুপের সদস্যদের অতর্কিত হামলার শিকার হই। তবে ঘটনাস্থলে তখন উপস্থিত জনতার সমাগম বেশী থাকায় অবস্থা বুঝে দ্রুত তারা সটকে পড়ে।

এদিকে  দক্ষিণপাড়া এলাকার শিক্ষিত যুবকদের উপর এমন সন্ত্রাসী হামলার ঘটনায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন এলাকার জামে মসজিদের ইমাম, এলাকায় বিভিন্ন বাড়ির ভাড়াটিয়া, চাকুরীজীবি ও ব্যবসায়ী সহ সর্বস্তরের জনগণ। তারা জানান, দক্ষিণপাড়া এলাকায় সিসি ক্যামেরা স্থাপনের যে উদ্যোগ সেটি নি:সন্দেহে একটি ভালো উদ্যোগ। আমরা সবাই বিষয়টি অবগত। তবে যারা অপরাধের সাথে জড়িত, এলাকায় যারা চুরি, মাদক ব্যবসা সহ অপরাধমূলক কর্মকান্ডের সাথে জড়িত বিষয়টি তাদের জন্য ভয়ের কারণ হওয়ায় তারা এটির বিরোধীতা করছিলো। আমরা সকলে এ ঘটনার উপযুক্ত বিচার দাবি করি।

স্বপ্ন ডানা নামক সংগঠনের পক্ষ থেকে এমন ঘটনায় তীব্র নিন্দা জানিয়ে অভিযুক্তদের দ্রুত গ্রেপ্তার ও উপযুক্ত শাস্তির দাবি জানিয়েছেন তারা।

সাভার “সমাজ উন্নয়ন কেন্দ্র (এসইউকে)” সংগঠন ধামরাই পৌরসভার ৫ নং ওয়ার্ডের “দক্ষিণপাড়া সমাজ কল্যাণ সমিতির” সদস্যদের উপর এমন হামলার তীব্র নিন্দা এবং অবিলম্বে অভিযুক্ত আসামীদের গ্রেপ্তারে প্রশাসনের সুদৃস্টি কামনা করেন। “দক্ষিণপাড়া কল্যাণ সমিতির” যে কোন কাজে আগামীতে পাশে থাকবার কথা জানান সংগঠনটি দায়িত্বরতরা।

ধামরাই থানা অফিসার ইনচার্জ আতিকুর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন বিষয়টি খুবই দুংখজনক। ঘটনার পর আমি নিজে আহত যুবকদের দেখতে হাসপাতালে গিয়েছি। এ ঘটনায় ধামরাই থানায় একটি মামলা দায়ের হয়েছে এবং পুলিশী অভিযানে ১ আসামী গ্রেপ্তার হয়েছে। আমরা অপর আসামীদের ধরতে অভিযান চালাচ্ছি।

উল্লেখ্য ধামরাই পৌরসভার ৫ নং ওয়ার্ড এর স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন “দক্ষিণপাড়া সমাজ কল্যাণ সমিতি” শুরু থেকেই সামাজিক বহুমুখী কল্যাণমূলক কর্মকান্ডের সাথে জড়িত। বিগত করোনা সময়ে সংগঠনের পক্ষ থেকে যেভাবে অসহায় ও দরিদ্রদের সহায়তা খাদ্য, হ্যান্ড স্যানিটাইজার, মাস্ক, ওষুধ  ও চিকিৎসা সেবা দিয়েছে তাতে তারা দক্ষিণপাড়াবাসীসহ পৌরসভার সচেতন মহল ও প্রশাসনের সুনজর কেড়েছেন। ইতিমধ্যে সংগঠনের পক্ষ থেকে দক্ষিণপাড়ার ওলি-গলির বাড়ি লেন নম্বর ও বাড়ি নম্বর উল্লেখ করে সাইনবোর্ড টানিয়ে দিয়েছেন যাতে সকলেই উপকৃত হচ্ছেন। এবার  তারা এলাকার চুরিসহ অপরাধমূলক কর্মকান্ড নিমূলে সিসি ক্যামেরা স্থাপনের উদ্যোগ নিয়েছে। যা কোন ভাবেই অপরাধী চক্র মেনে নিতে পারেনি।

 

 

সাভার

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *