অসহায় কৃষকের ধান কেটে ঘরে তুলে দিলেন সাভারের তেঁতুলঝোড়া ইউপি চেয়ারম্যান ফখরুল আলম সমর

অসহায় কৃষকের ধান কেটে ঘরে তুলে দিলেন
সাভারের তেঁতুলঝোড়া ইউপি চেয়ারম্যান ফখরুল আলম সমর

 

নিউজ হাঁট ডেস্ক:

মাঠে পাকা ধান, কাটবার নেই সাধ্য। করোনা পরিস্থিতিতে চলমান লকডাউনে বিপাকে পড়া কৃষক সমন আলী রীতিমতো চোখে মুখে সরিষা ফুল দেখছিলো। অন্য সময় হলে ধারকর্য করে ধান কাটার শ্রমিক ম্যানেজ করে ধান কেটে মাড়াই করে রীতিমতো বাড়িতে ঘরের গোলায় ভরা হয়ে যেত কিন্তু এখন তো সেটিও সম্ভব হচ্ছে না, কেননা লকডাউনের কারণে অর্থ সংকট ও শ্রমিক ম্যানেজ করা দুটোই প্রায় অসম্ভব ছিলো সমন আলীর জন্য।
মঙ্গলবার ( ৪ মে ২০২১) সাভার উপজেলার তেঁতুলঝোড়া ইউনিয়নের রাজফুলবাড়িয়া রাজাগাট এলাকার অসহায় ওই কৃষক সমন আলীর জমির পাকা ধান কেটে, মাড়াই করে বাড়িতে তুলে দিয়েছেন সদ্য করোনা জয়ী তেঁতুলঝোড়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ও সাভার উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক চেয়ারম্যান জনবন্ধু মোহাম্মদ ফখরুল আলম সমর।
স্থানীয় ছাত্রলীগের নেতা-কর্মী ও নিজের ভলেন্টিয়ার গ্রæপ নিয়ে সকালে সাভারের ফুলবাড়িয়া রাজাগাট এলাকার অসহায় কৃষক সমন আলীর জমিতে হাজির হন চেয়ারম্যান। দুপুর নাগাদ ২ বিঘা জমির ধান কেটে মাড়াই করে কৃষকের বাড়িতে পৌছে দেন। এমন কাজে আবেগ আপ্লুত হয়ে বারবার কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন সমন আলী।
কৃষক সমন আলী জানান, আমি ভীষন খুশি, কৃতজ্ঞতা প্রকাশের ভাষা নেই আমার, আল্লাহ উনাদের ভালো করবেন। বেশ দুশ্চিন্তায় ছিলাম। ধান কাটা নিয়ে আমার সমস্যার বিষয়টি আমি জানিয়েছিলাম কিন্তু খবর পাবার ২৪ ঘন্টা না যেতেই চেয়ারম্যান নিজেই এভাবে এসে ধান কেটে বাড়ি তুলে দিবেন ভাবতেই পারিনি। তারা না এলে আমার পক্ষে ধান কেটে বাড়ি তোলা সম্ভব হতো কিনা জানিনা।
চেয়ারম্যান মোহাম্মদ ফখরুল আলম সমর জানান, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনার নির্দেশে করোনা মোকাবেলার জন্য আমি ইতিপূর্বে ইউনিয়নের ৯টি ওয়ার্ডের সর্বসাধারণের তথ্যাদি পেতে পৃথক তথ্য কেন্দ্র করেছি। যেকোন অসহায় মানুষ তার সমস্যার বিষয়টি আমাদের জানানোর সাথে সাথে আমরা তা সমাধানে ব্যবস্থা নেই। অসহায় কৃষক ধান কাটতে পারছে না বিষয়টি গতকাল জানার পরই আজ সকালে আমরা ধান কেটে, মাড়াই করে কৃষকের বাড়িতে তুলে দিয়েছি। এমন সেবা অব্যাহত থাকবে বলেও জানান তিনি।

সাভার
০৪.০৫.২০২১

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *